দু’দিনব্যাপি ‘রবীন্দ্রনাথের শিক্ষা-ভাবনা’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলন সমাপ্ত

উত্তরা ইউনিভার্সিটি আয়োজিত ‘রবীন্দ্রনাথের শিক্ষা-ভাবনা’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপণ অনুষ্ঠানে সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এম.পি বলেছেন, বিএনপি-জামাত বাংলাদেশকে জঙ্গী রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। আমরা তা হতে দিব না। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশে জঙ্গীবাদীদের মূলোৎপাটন করা হবে।
সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনে অংশ নেয়া বিদেশী অধ্যাপক ও গবেষকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তাঁরা এসে প্রমাণ করেছেন বাংলাদেশে এখনও একটি নিরাপদ রাষ্ট্র।
আজ শনিবার বিকালে রাজধানীর উত্তরা ইউনিভার্সিটিতে দু’দিন ব্যাপি ‘রবীন্দ্রনাথের শিক্ষা-ভাবনা’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলন-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। উত্তরা ইউনিভার্সিটি (বাংলাদেশ), রবীন্দ্র চর্চাকেন্দ্র, রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয় (ভারত) ও বাংলা বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (বাংলাদেশ)-এর যৌথ আয়োজনে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মেসবাহ কামাল বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দর্শণ গ্রহণে রবীন্দ্রনাথের শিক্ষা কাজে লাগানো হয়েছে।
পিকিং ইউনিভার্সিটির দক্ষিণ এশিয়ান স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. চাং শিং বলেন, শুধু বাংলাদেশ ও ভারত নয়, বিশ্বজুড়েই শান্তি ও সম্প্রীতি গড়ে তুলতে রবীন্দ্রনাথের শিক্ষা ভূমিকা রেখেছে। তিনি তার বক্তব্য শেষে রবীন্দ্র সঙ্গীত পরিবেশন করেন।
টোকিও ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক ড. মসাহিকো টোগাওয়া তার বক্তব্যে রবীন্দ্র চর্চার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন।
সভাপতির বক্তব্যে উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইয়াসমীন আরা লেখা বলেন, আন্তর্জাতিক এ সম্মেলন সফল করায় দেশ বিদেশের রবীন্দ্র গবেষকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, এ সম্মেলনের মধ্যদিয়ে যে অভিজ্ঞতা অর্জিত হয়েছে তা কাজে লাগালে সামাজিক, রাষ্ট্রীয় ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে।
সমাপণ অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের অধ্যাপক ড. রফিকউল্লাহ খান, অধ্যাপক ড. রতন সিদ্দিকী এবং ভারতের অধ্যাপক মুনমুন বন্দ্যোপাধ্যায় ও অধ্যাপক মহুয়া মুখোপাধ্যায়।
অনুষ্ঠানে আউট স্ট্যান্ডিং পারফর্মেন্সের জন্য উত্তরা ইউনিভার্সিটির ডেপুটি রেজিস্ট্রার আ. রহীম রেজা ও সহকারী রেজিস্ট্রার এস.কে.এইচ.এম হাসান-কে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়।
পরে বাংলাদেশ ও ভারতের শিল্পীদের সমন্বয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।



Upload Date: 08 Aug 2016